Ad Code

Ticker

6/recent/ticker-posts

বাবুই পাখি কবিতা : বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি 2022

যারা বাবুই পাখি কবিতা লিখে সন্ধান করছেন। তাঁরা একদম ঠিক জায়গায় এসেছেন। এখানে সুন্দর করে অনেক গুলো বাবুই পাখি কবিতা দেওয়া হয়েছে। সেই সাথে রয়েছে অসংখ্য বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি। যা আপনাকে মোটিভেট করবে, জীবনে সফলতার পথে অবিরাম চলতে সাহায্য করবে। 

কেন বাবুই পাখি কবিতা? কেন উট পাখি নয়? ছোট্ট এই পাখি নিয়ে এত মাতামাতি কেন? কেনই বা মানুষ বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি পড়তে চায় ২০২২ সালে এসেও? শুধু আকারে বড় হলে বা ধারালো নোখ থাকলেই সকলে আদর্শ মানে না। আদর্শ হতে গেলে তেমন গুন প্রয়োজন। সেই শিক্ষাই দিচ্ছে বাবুই পাখি। যদিও সামান্য ভর উঠানোর ক্ষমতা নেই, সেনাবাহিনীতে কাজে আসে না, না থাকে পোষা পাখি হিসেবে। শুধুমাত্র নিজ কর্ম গুনে সৃষ্টির সেরা জীব মানুষকে বাধ্য করেছে অনুসরণ করতে। তাই চলুন বাবুই পাখি থেকে শিক্ষা নেই-

বাবুই পাখি কবিতা : বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি 2022

বাবুই পাখি কবিতা

গুণ সম্পন্ন এই পাখি নিয়ে অনেক কবি অনেক কবিতা লিখেছেন। তবে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে রজনীকান্ত সেনের “স্বাধীণতার সুখ”। আমরা সকলেই ছোট বেলায় এই কবিতা পড়েছি। বইয়ে না পড়ে থাকলে অবশ্যই মা এর মুখে শুনেই থাকবেন এই বাবুই পাখি কবিতা। কবিতার মূল ভিত্তি হচ্ছে বাবুই আর চড়াই পাখির মধ্যে কয়েক লাইনের কথোব কথন। বাবুই পাখিকে চড়াই কুঁড়ে ঘড়ে থাকার জন্য খোচা দিয়ে বলছে- “ কুঁড়ে ঘড়ে থেকে কর শিল্পের বড়াই”  । যা আমাদের সমাজের সাধারন চিত্র। যারা একটু ভালো অবস্থাতে থাকে, এবং তাঁদের থেকে নিচু জীবন যাপন কারীদের বিভিন্ন ভাবে হেনস্থ করার চেষ্টা করে। তাঁদের নিচে দিকে নামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। 

পরের লাইনের বাবুই পাখির অসাধারন জবাব দেখতে পাই। জবাবে সে বলে- “কষ্ট পাই তবু থাকি নিজের বাসায়”।ছোট এই লাইনে রয়েছে আমাদের জন্য চরম শিক্ষা। বাবুই পাখি তার নিজের বানানো কুঁড়ে ঘড়ে থাকতে পছন্দ করে। কেননা সে আত্মসম্মান সম্পন্ন খেটে খাওয়া মানুষ দের প্রতীক। যারা না খেয়ে থাকলেও অন্যের কাছে হাত পাতে না। নিজ বলে সোনার ফসল ফলিয়ে আহারের ব্যবস্থা করেন। চড়াই পাখির মতো সমাজের তথাকথিত উচ্চ শ্রেনীর লোকজন নানা ভাবে অসহায় মানুষদের শোষণ করে সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলে। আবার সেই সম্পদের বড়াই তাঁদের উপর করে, যাদের থেকে লুটেছে 🙂

বাস্তবতাকে এই কবিতায় সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। চড়াই কে বাবুই বলছে পাকা হোক, কিন্ত সেটা অন্যের ঘড়। যেমনটা সমাজের শোষণ কারীদের ক্ষেত্রে দেখা যায়। অনেক বড় বহুতল ভবনের মালিক হলেও সেটা হয় অন্যের হকের টাকা দিয়ে। অন্যায় ভাবে অন্যকে মেরে নেওয়া টাকা। বাবুই পাখি কবিতা এই বিষয়টিকেই দেখাণো হয়েছে। পরের অট্টালিকা বা অন্যকে লোটে নেওয়া সম্পদের থেকে নিজের সামান্য কুঁড়ে ঘর উত্তম। 

বাবুই পাখি কবিতা লিরিক্স 

কবিতাটি লিখেছেন রজনীকান্ত সেন। এবং নাম দেওয়া হয়েছে  “স্বাধীনতার সুখ” যেটা কবিতার মূল ভাব। যেখানে কবি স্বাধীনতার, আত্মমর্যাদার, আত্মসন্তুষ্টির গুরুত্ব বোঝানোর চেষ্টা করেছেন। চলুন দেখে নিই কবিতাটি-

বাবুই-পাখি-কবিতা

বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি

কথা মতো এখন  বাবুই পাখি নিয়ে কিছু উক্তি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো। অনেকের কাছে মনে হতে পারে, আমরা মানুষ। আমরা কেন বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি পড়তে যাবো। তাঁদের উদ্দেশ্যে বলি, শিক্ষা যেখান থেকেই পাই না কেন। শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। একটি উক্তি দিয়ে যদি বলতে চাই তাহলে এমন হয়-

শিক্ষার উৎস যাই হোক না কেন, আমাদের কাজ গ্রহন করা।  

যদি একটি সামান্য পাখির মধ্যে শেখার মতো কোন গুণ থাকে। তবে আমাদের অবশ্যই তা জানা উচিত। কেননা জ্ঞান কখনোই বেশি হয় না। অনেক জ্ঞানী ব্যক্তি এমন টা মনে করেন যে- “প্রত্যেকের ভালো খারাপ দুই দিক আছে, আমাদের কাজ হবে খারাপ দিক বর্জন করা এবং ভালো গুণ গুলো নিজের মধ্যে নেওয়া।” তাই চলুন দেখে নিই বাবুই পাখি উক্তি গুলো এবং চেষ্টা করি নতুন কিছুর সন্ধান করার। 

পরের অট্টালিকা নয়, বরং নিজের কুঁড়ে ঘড়ে থাকার মধ্যেই রয়েছে প্রকিত গর্ব। 

সুখ হোক বা দুঃখ হোক, নিজের জিনিস সব সময় নিজের হয়ে থাকে। 

হারাম টাকায় মাছ গোশত খাওয়ার থেকে, হালাল টাকা দিনে এক বেলা খাওয়া উত্তম। 

বড়াই শুধু নিজের জিনিস নিয়েই দেখানো উচিত, যেটা তৈরিতে শ্রমিকের অভিশাপ না লেগে আছে। 

আমার মাঝে আমি সেরা, কেননা আমার ভিটে ঘামে গড়া। 

রোদ বৃষ্টি যাই হোক না কেন, আমাতেই আমি খুশি। 

চাহে দিন যায় বা না যায়, পর ধনে মাথা গোঁজার ইচ্ছা আমার নাই। 

আমাদের কাছে এতক্ষনে পরিষ্কার হয়ে গেছে যে বাবুই পাখি নিয়ে উক্তি কোন শিক্ষ দিতে চাচ্ছে। বুঝতে শিখাচ্ছে যে আমাদের যা আছে সেটাই সেরা এবং সেটা নিয়েই সন্তস্ট থাকতে। সুযোগ পেলেই অন্যের অট্টালিকায় উঠে যাওয়া থেকে নিজের কুঁড়ে ঘড়ে থাকা অনেক বেশি সম্মানের। কারোরই উতিচ নয় অন্যের উপর নির্ভরশীল থাকার। এবং নির্ভর থাকলেও সেটা নিয়ে গর্ভ করা আর অন্যদের তুচ্ছ ভাবা যা কোণ মতেই উচিত নয়।

শেষ কথা

আশা করি নতুন কিছু শিখতে পেরেছি । নতুন সব বাবুই পাখির উক্তি শেয়ার করা হয়েছে। চেষ্টা করবেন বাবুই পাখির এই শিক্ষা গুলো নিজের জীবনে প্রতিফলন ঘটানোর। এতক্ষণ সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Post a Comment

0 Comments